top news 24

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জ সংলগ্ন লোকালয় ধানসাগর ইউনিয়নের পশ্চিম রাজাপুর গ্রামে বাঘ আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে গ্রামের প্রায় এক কিলোমিটার এলাকা জুড়ে রয়েল বেঙ্গল টাইগারের (বাঘ) পায়ের তাজা অসংখ্য ছাপ দেখতে পেয়ে মানুষের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে।

দুই ধরণের পায়ের ছাপ দেখে এলাকাবাসী ধারণা করছে বুধবার রাতে দুটি বাঘ সুন্দরবন ছেড়ে লোকালয়ে ঢুকেছে। তবে, সুন্দরবন বিভাগ জানিয়েছে, বুধবার রাতে দুটি নয় একটি বাঘ লোকালয়ে ঢুকে ভোর রাতে আবারও সুন্দরবনে ফিরে গেছে। গ্রামবাসীকে সতর্ক থাকতে মাইকিং করা হয়েছে। পুনরায় বাঘ যাতে না আসতে পারে সেজন্য সুন্দরবন বিভাগ, ভিলেজ টাইগার রেসপন্স টিম (ভিটিআরটি) ও কমিউনিটি প্যাট্রোলিং গ্রুপের (সিপিজি) সদস্যদের গ্রামে পাহারা দিতে বলা হয়েছে। সুন্দরবন ছেড়ে লোকালয়ে বাঘ আসার খবর পেয়ে শরণখোলা থানার ওসি মো. সাইদুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এলাকাবাসী জানায়, শরণখোলা উপজেলার আওতাধীন বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের ধানসাগর ফরেস্ট স্টেশনের কলমতেজী টহল ফাঁড়ি সংলগ্ন বন থেকে ভোল নদী সাঁতরে ওয়াপদার রাস্তা পার হয়ে বাঘ গ্রামে ঢোকে। এসব পায়ের ছাপ দুই ধরণের দেখে মনে হচ্ছে দুটি বাঘ এসেছিলো।
গ্রামের প্রায় এক কিলোমিটার এলাকা জুড়ে বাঘ বিচরণ করেছে। বাঘ সুন্দরবনে ফিরে গেছে না গ্রামের ঝোপঝাড়ে লুকিয়ে আছে তা নিশ্চিত হতে পারেনি এলাকাবাসী। মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। তবে, গ্রামের কারও কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। এই অবস্থায় গ্রামবাসীকে সতর্ক থাকার পাশাপাশি শিশুরা যাতে বাইরে না যায় সেজন্য অভিভাবকদের নির্দেশনা দিয়েছে সুন্দরবন বিভাগ।

শরণখোলার সাইথখালী ইউপি সদস্য তালুকদার হুমায়ুন করিম সুমন জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে এমাদুল হাওলাদার (৩৮) নামের এক কৃষক প্রথমে তার বাড়ির সামনে বাঘের পায়ের তাজা ছাপ দেখতে পান। তার মাধ্যমে জানতে পেরে আশপাশ এলাকায় খোঁজ নিয়ে এক কিলোমিটার এলাকা জুড়ে দুই ধরনের বাঘের পায়ের অসংখ্য ছাপ দেখতে পায় স্থানীয়রা।

বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) মো. এনামুল হক বলেন, সংশ্লিষ্ট বন অফিসের বনরক্ষী, ভিটিআরটি ও সিপিজি সদস্যদের মাধ্যমে বাঘের পায়ের ছাপের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এছাড়া বাঘের বিচরণ এলাকার বাঘের পাড়ার ছাপ অনুসরণ করে দেখা যায় দুটি নয়, মাত্র একটি বাঘই সুন্দরবন থেকে লোকালয়ে এস বাঘটি আবার বনে ফিরে গেছে। মাইকিং করে সবাইকে সতর্ক করা হয়েছে। গ্রামবাসীর সমন্বয়ে বনরক্ষী, ভিটিআরটি ও সিপিজি সদস্যরা গ্রাম পাহারায় রয়েছে।

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান বলেন, ওই গ্রামের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে বাঘের পায়ের অসংখ্য তাজা ছাপ চোখে পড়েছে। এলাকাবাসীকে আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

বাঘ যাতে লোকালয়ে না ঢুকতে পারে সেজন্য সুন্দরবন বিভাগের ‘টাইগার কনজারভেশন প্রকল্পের’ মাধ্যমে ভারতের আদলে বনের পাশ দিয়ে প্লাস্টিকের নেটের বেড়া দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here