অনুসন্ধানী রিপোর্ট,,দেশ যখন ভালর দিকে যায় , যখন কোন নেতা ভাল কিছু করার চিন্তা করে ঠিক তখনে কিছু সুবিধা ভোগি ও সরজন্ত্র কারি উঠেপরে লেগেযায় । হা আমি একজন ভাল নেতার কথা বলছি , যিনি যুবলিগকে ঢেলে সাজাতে চান , ঘোষনাও দিয়েছেন যে , কোন বিপদগ্রস্ত যুবলীগে ঠাঁই পাবেনা ।
দু:খেক ব্যাপার হলোযে , সাভারের পেশাদার চাঁদাবাজ আস্রয় নিয়েছে যুবলিগে , যার বাপ চাচার পেসা ছিল ডাকাতি । যুবলীগের স্বাধারন সম্পাদক মাইনুল হোসেন নিখিল সাহেবের ছবি ঝুলিয়ে দেদারছে করছে চাদাবাজি , অত্যাচারে অতিষ্ঠ গ্রামবাসী , ভাব মূর্তি নষ্ট হচ্ছে আওয়ামিলিগের , যুবলীগের । খোযনিয়ে জানাযায় সে কখনও কোন মিটিং মিসিলে যায়নি , কোন নেতা তাকে আওয়ামিলিগের নেতা হিসাবে চিনেনা ।
নাম:- সামসুল হক , বাপ চাচার পেসা ছিল ডাকাতি , ডাকাতের সরদার ডাকাত আমানুল্লাহর ভাতিজা হিসাবে সবাই চিনে , সবাই ডাকে ডাকাতের ভাতিজা সামসুল ,,, সাভার বিরুলিয়া শ্যামপুরের ছিচকে মাস্তান চাঁদাবাজ সামসুল , যুবলিগের কোন পদ পদবি নাই , এমনকি যুবলিগের কোন সদস্যও না , বিএনপির সাবেক আলাল চেয়ারম্যান এর সন্ত্রাস বাহিনিতে ছিল , সাভার থানায় তার নামে মামলা আছে , আছে তার নামে অনেক জিডির , এখন পুলিশের হাতথেকে বাঁচতে যুবলীগের নাম ভাঙাইয়া চলে , নিখিল সাহেবের ছবি ঝুলাইয়া করছে চাদাবাজি , ওর দ্বারা যুবলিগের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে , প্রতিটা যাগায় সে যুবলীগের নাম বিক্রি করছে , গ্রামবাসী অতিষ্ঠ ।
গ্রামবাসী ওর জুলুম থেকে বাঁচতে চায় , তাই কেন্দ্রিয় যুবলিগ নেতাদের দৃষ্টি আকর্সন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here