আবুল কাসেমঃ-

বিশেষ প্রতিনিধি-

রাজধানীতে প্রতিদিনই কোথাও না কোথাও ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে। আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে চলছে ছিনতাইকারী চক্রের দৌরাত্ম্য।
ছিনতাইকারীরা এতটাই বেপরোয়া যে, তাদের হাতে একের পর এক প্রাণ হারাচ্ছেন সাধারণ মানুষ।
ছিনতাইকারীদের শিকার হচ্ছেন স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী, ব্যবসায়ী, সাংবাদিক, ডাক্তার, নার্স। এমনকি পুলিশ কর্মকর্তাও বাদ পড়ছেন না এদের কবল থেকে। অনেক সময় দেখা যায়, ছিনতাইকীদের ছুরিকাঘাত ও হ্যাঁচকা টানে গাড়ির নিচে পড়ে অকালে প্রাণ হারিয়েছেন অনেকেই। বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়,ছিনতাইকারীদের হাতে গত ১ মাসে অন্তত ১৫ জন নিহত এবং আহত হয়েছেন অর্ধ-শতাধিক।
সর্বশেষ বৃহস্পতিবার রাত ৯:৫ মিনিটের দিকে শাহআলী থানাধীন হাজী রোডের সামনে থেকে ছিনতাইয়ের শিকার হোন ” দৈনিক অন্যায়ের চিত্র”পত্রিকার বিশেষ প্রতিনিধি, এস এম রাসেল। এ সময় ছিনতাইকারীদের ব্যবহারকৃত
লাল রংঙের হোন্ডায় থাকা কালো রঙের হেলমেট পরিহিত দুই ছিনতাইকারী।সাংবাদিক এস এম রাসেলের কাঁধে থাকা (ডিএসএলআর) ক্যামেরাসহ ব্যাগে থাকা মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যায়। তার চিৎকারে আশ পাশের লোকজন ছিনতাইকারীদের প্রতিহত করার চেষ্টা করলে ছিনতাইকারিরা দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় । এ বিষয়টি শাহ্আলী থানার ওসি এবিএম আসাদুজ্জামানকে অবহিত করিলে তিনি এবং ওসি অপারেশন, মোহাম্মদ জাহেদুর রহমানসহ পুলিশের টিম দ্রুত ঘটনা স্থলে আসেন এবং চেকপোস্ট বসিয়ে শতাধিক হোন্ডা তল্লাশি করেন।
ক্রাইম সিনের আশ পাশের সিসিটিভি ক্যামেরা ফুটেজ সংগ্রহ করা ও ফুটেজ রেকর্ড ক্ষতিয়ে দেখার নির্দেশ দেন ওসি শাহ্আলী। এসময় সংবাদ পেয়ে বিভিন্ন পত্র পত্রিকার সংবাদ কর্মীরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন এবং দুঃখ প্রকাশ করেন।
এসময় সংবাদ কর্মীরা অতি দ্রুত ছিনতাইকারীদের গ্রেফতার করার পাশাপাশি ক্যামেরা উদ্ধারের দাবী জানান। এ বিষয়ে শাহআলী থানার ওসি এবিএম আসাদুজ্জামান বলেন, আমরা ছিনতাইকারীদের গ্রেফতারের চেষ্টা করছি। অতিদ্রুতই ছিনতাইকৃত মালামাল এবং আসামিদের গ্রেফতার করার আশ্বাস দেন তিনি।
ওসি অপারেশন জাহিদুল ইসলাম বলেন, ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক তবে আমরা সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে ছিনতাইকারীদের গ্রেফতারের সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করবো এতে কোন ত্রুটি থাকবে না।
এ ঘটনায় ভুক্তভুগী সাংবাদিক এসএম রাসেল, শাহআলী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন, এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
যেকোনো ঘটনা ঘটার পর পুলিশ, র‌্যাব, পিবিআই ও ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে অপরাধীদের গ্রেফতার করা হয়।কিন্তু কিছু দিনের মধ্যেই তারা আইনের ফাঁক ফোঁকড়ে বেরিয়ে এসে একই পেশায় নিয়োজিত হয় । এ কারণে দিন-দিন বেড়েই চলছে এসব অপরাধের মাত্রা।একাধিক সূত্রে জানা যায়, অনেক সময় ঝামেলা এড়াতে ছোট খাটো ছিনতাইয়ের ঘটনায় ভুক্তভোগিরা আইনের শরানাপন্ন হচ্ছে না।….. চলমান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here