সহজেই হারাল তামিম-ইমরুলের কুমিল্লা

স্পোর্টস ব্যুরো : 

ইনজুরির কারণে নিয়মিত অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ দেশে ফেরত গেছেন। মাঠে নামার আগেই কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস শিবিরে একটা বড় ধাক্কা লাগে। দলের অন্যতম নির্ভরযোগ্য খেলোয়াড় চলে যাওয়ার ধক্কা সামলে ভালোই খেলেছে তামিম ইকবালের দল। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে তারা জিতেছে সহজেই পাঁচ উইকেটে।

আজ শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে রাজশাহীর করা ১২৪ রানের জবাবে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৩০ রান করে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে কুমিল্লা। তিন ম্যাচে এটি তাদের দ্বিতীয় জয়। আসরের প্রথম ম্যাচে সিলেট সিক্সার্সের বিপক্ষে জয় পেলেও দ্বিতীয় ম্যাচে রংপুর রাইডার্সের কাছে বড় ব্যবধানে হেরে যায় তারা।

এদিন লক্ষ্য ছোট তাই জয় পেতে খুব একটা বেগ পেতে হয়নি কুমিল্লার। ওপেনার এনামুল হক বিজয় ৪০, এভিন লুইস ২৮ ও তামিম ইকবাল ২১ রানের কয়েকটি ইনিংস খেলে দলের জয়টাকে সহজ করে দেন।

এর আগে রাজশাহী প্রথমে ব্যাট করতে নেমে গড়েছে মাত্র ১২৪ রান। ইনিংসের শুরুতেই যে বিপর্যয়ে পড়ে তা আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি তারা। কুমিল্লার নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সামনে তিনজন মাত্র কিছুটা দৃঢ়তা দেখিয়েছেন। এ ছাড়া অন্যরা ছিলেন আসা-যাওয়ার দলে।

অধিনায়ক মিরাজ ওপেনিংয়ে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১৭ বলে ৩০ রানের চমৎকার একটি ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন। কিছুটা চেষ্টা করেন তরুণ জাকির হাসান, ২৬ বলে ২৭ রান করেন। আর  উদানা করেন অপরাজিত ৩২ রান।

রাজশাহীর ব্যাটিংয়ের সামনে বড় দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়েছেন পাকিস্তানি স্পিনার শহীদ আফ্রিদি ও বাংলাদেশি পেসার সাইফউদ্দিন। আফ্রিদি চার ওভার বল করে মাত্র ১০ রান খরচায় তিন উইকেট পান। আর সাইফ তিন ওভারে ২৫ রানে দুটি উইকেট নেন। এ ছাড়া আবু হায়দার রনি ২.৫ ওভারে ৩৭ রান দিয়ে দুটি উইকেট পান।

রাজশাহী এর আগে আসরের প্রথম ম্যাচে ঢাকা ডায়নামাইটসের কাছে ৮৩ রানের বড় ব্যবধানে হারলেও দ্বিতীয় ম্যাচে খুলনা টাইটানসকে হারায় সাত উইকেটের বড় ব্যবধানে।

আর কুমিল্লা নিজেদের প্রথম ম্যাচে সিলেট সিক্সার্সকে চার উইকেট হারালেও দ্বিতীয় ম্যাচে রংপুর রাইডার্সের কাছে নয় উইকেটের বড় ব্যবধানে হেরে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here