আবুল কাসেম বিশেষ প্রতিনিধিঃ-

গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর মিরপুরে বিসিআইসি কলেজের অপজিটে, কুমির শাহ্ মাজার সংলগ্ন গ্রিনসিটি নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ের পিছন থেকে রাজিবের লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন এলাকাবাসী।
পরে পুলিশ এসে রাজিবের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন শাহ্আলী থানা পুলিশ।ভোলা লালমোহন থানার লেছইনা গ্রামের তসলিম সিকদারের ছেলে রাজিব। ৭/৮ দিন আগে রাজিবেন মামা রড মিস্ত্রি কামালের মাধ্যমে গ্রিনসিটিতে কাজে আসে বলে জানা যায়।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায় একটি মোবাইল ফোন সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে খুন হতে পারে রাজিব। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নিহত রাজিব ঠিকাদার হারুনের অধিনে রডের কাজ করতেন বলে জানায় রাজিবের সত মামা।
শাহ্আলী থানাধীন চিড়িয়াখানা রোডের মুসকিল হাসান মাজার সংলগ্ন, গ্রীন সিটির নির্মাণাধীন ভবনের মাঝা মাঝি পূর্ব দেয়ালের ঝোপের পাশে রাজিব শিকদার (১৮) নামের একজন নির্মাণ শ্রমিকের রহস্যজনক লাশ উদ্ধার করেছে শাহ্আলী থানার পুলিশ।
নিহত রাজিব গ্রীন সিটির নির্মাণাধীন ভবনের নির্মাণ শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন বলে জানা গেছে। তিনি চলতি মাসের ১৩’ই অক্টোবর থেকে নিখোঁজ ছিলেন।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ১৫’ই অক্টোবর সকাল ১২’টার দিকে গ্রীন সিটির দেয়ালের পাশে নিহত রাজীবের লাশ পরে থাকতে দেখে শাহ্আলী থানা পুলিশকে খবর দেয়, পুলিশ এসে তার মরদেহ উদ্ধার করে। নিহত রাজিব সিকদারের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষতচিহ্ন রয়েছে এবং ডান পাশের একটি চোখ অর্ধ গলিত অবস্থায় রয়েছে ।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওই এলাকাতে চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয়রা বলছে, কি ভাবে এই হত্যা কান্ডের ঘটনা ঘটলো? কারাই বা এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে? কি হয়ে ছিল ছেলেটির সাথে সেদিন? এমন প্রশ্ন এখন স্থানীয়দের। তার উত্তর খুজঁতে মাঠে নেমেছে শাহ্আলী থানা পুলিশ।

তবে যেখানে রাজিব নিহত হয়েছে সেই জায়গাতে গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে স্থানীয় থানা পুলিশ, ডিবি, এসবি, সিআইডিসহ বিভিন্ন আইন প্রয়োগ কারি সংস্থার সদস্যরা।

এ বিষয়ে শাহ্আলী থানার ওসি এ,বি,এম, আসাদুজ্জামান বলেন, রাজিব নিহত হওয়ার ঘটনাটি নিখুঁত ভাবে তদন্ত চলছে। এটি কি নিছক দুর্ঘটনা নাকি পরিকল্পিত হত্যা, না কি অন্যকিছু ? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ে ধারনা করা হচ্ছে এটি হত্যা হতে পারে, বাকিটা তদন্তের পরে ছাড়া এর আগে কিছুই বলা যাবেনা, তবে এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

এ সময়ে ঘটনাস্থল থেকে ওই নির্মাণাধীন ভবনের বেশ কয়েকজন সন্দেহ জনক নির্মাণ শ্রমিক কে থানায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here