মিরপুরে ফুটপাত চাঁদাবাজি কবির বাহিনীর রাজত্ব#মিরপুর-১।।

#মিরপুরে ফুটপাত চাঁদাবাজ কবির বাহিনীর রাজত্ব#মিরপুর-১ এর ফুটপাতে চলছে চাঁদাবাজ কবির প্রকাশ্যে চাঁদাবাজী। স্থানীয় কিছু ছত্রছায়ায় দীর্ঘদিন ধরে ফুটপাত বাণিজ্য চলমান এবং কবিরের নিরাপত্তার জন্য মিরপুরে পুরো এলাকায় সিসি ক্যামেরা লাগানো হয়েছে রয়েছে তার গুন্ডাবাহিনী। থাকায় সাধারণ ব্যবসায়ীরা ছিল অতিষ্ঠ। কারণ কবির এর চাঁদাবাজীর কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পায়না। কারণ এলাকার নেতা পাতিনেতা সবাই চাঁদার ভাগ পেত। এমনকি,শাহআলী থানার অসাধু পুলিশ কর্মকর্তারাও ফুটপাত থেকে আদায়কৃত টাকার ভাগ পায়। যার ফলে কেউ প্রতিবাদ করতে পারতনা। প্রতিবাদ করলে তার ব্যবসা অটো বন্ধ হয়ে যেত। কবির যে টাকা নির্ধারন করে দিত সেই টাকা দিয়েই তারা ব্যবসা করতে বাধ্য। মাঝেমধ্যে ফুটপাতের চাঁদার টাকার ভাগাভাগি নিয়ে দ্বন্ধ হওয়ায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে ফুটপাত বন্ধ করে দিত। পরবর্তীতে পুলিশের সহায়তায় লাখ লাখ টাকার আপোসে কবির ব্যবসা শুরু করতো। এলাকার মার্কেট এর কিছু ব্যবসায়ীদের মতে, মুক্তিযোদ্ধা মার্কেট সহ ফুটপাতের টাকা কবির বাহিনীর নিয়ন্ত্রণ করে লাখ লাখ টাকা আদায় করে ভাগাভাগি করে নেয়। মিরপুরের ফুটপাতে কম হলেও ৩০০০ মতো অস্থায়ী দোকান দোকানপতি এডভান্স নেয়া হয়েছে ৮০ হাজার থেকে এক লক্ষ টাকা । প্রতিদিন প্রতি দোকান থেকে /৩/৪/৫ শত করে চাঁদা আদায় করা হয়। সে হিসেবে মাসে কোটি টাকার মতো আদায় হয়। কবির এই টাকার ভাগ স্থানীয় , ও নেতা-পাতিনেতার মধ্য ভাগ করে দেয়। পুলিশও এই টাকার ভাগ পায়। যার ফলে কবির ওপেন চাঁদাবাজীর খবর মিডিয়ায় প্রকাশ হলেও স্থানীয় থানা পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। এমনকি, সাবেক জনপ্রতিনিধিরা নিরব দর্শক হয়ে ছিল। তবে, বর্তমান এমপি বিষয়টি নজরে নিলে ফুটপাত বাণিজ্য বন্ধ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। উল্লেখ ফুটপাতের কারণে সাধারণ মানুষের চলাফেরা কষ্টকর। এখানে নিয়মিত টাকা ও মোবাইল ছিনতাই হয়। এই চক্র নিয়ন্ত্রণ করছে ।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *