টপ নিউজ 24

করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে লন্ডভন্ড যুক্তরাষ্ট্র। প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। করোনার প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই এর বিস্তার রোধে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও বিশেষজ্ঞরা সবাইকে মাস্ক পরতে আহ্বান জানালেও আমেরিকানরা তা গুরুত্ব দিচ্ছে না। এ ব্যাপারে জোর করছেন না প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও। এমন সময়, ফ্লোরিডায় এক ব্যক্তিকে মাস্ক পরতে বলায় ঘটে গেলো অপ্রীতিকর ঘটনা। মাস্ক পরতে বলা ক্রেতার মাথায় বন্দুক তাক করলেন ভিনসেন্ট স্ক্যাভেত্তা নামের ওই ক্রেতা।

বন্দুকের বৈধ লাইসেন্স থাকলেও ছাড় পাননি ২৮ বছরের ওই যুবক। প্রাণঘাতী অস্ত্রের অযাচিত প্রদর্শনের জন্য জেলে যেতে হয়েছে স্ক্যাভেত্তাকে। বৃহস্পতিবার রাজ্য পুলিশের এক কর্মকর্তা টুইটারে লিখেছেন, ‘পাম বিচ কারাগারে স্বাগতম। এই ঘটনা থেকে শিক্ষা নেওয়া উচিত। ভয়ঙ্কর কিছু ঘটতে পারতো।’

গত ২০ জুলাই থেকে ওয়ালমার্টে আসা ক্রেতাদের জন্য মাস্ক বাধ্যতামূলক করা হয়। এরপরও স্ক্যাভেত্তার মুখে মাস্ক না দেখে তাকে তা পরতে বলেন আরেক ক্রেতা। তখনই তর্কাতর্কি শুরু হয়। এক পর্যায়ের নিজের কোমড়ে থাকা বন্দুক বের করে তার মাথায় তাক করার আগে বলেন, ‘আমি তোমাকে মেরে ফেলবো।’

দোকানকর্মীদের হস্তক্ষেপে শেষ পর্যন্ত তাদের ছাড়ানো হয়। তবে পরে ভিডিও ফুটেজ দেখে অস্ত্রধারী স্ক্যাভেত্তাকে শনাক্ত করে পুলিশ কার্যালয়ে ডাকা হয় এবং তার স্বীকারোক্তির পর গ্রেপ্তার করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here