মাশরাফির রংপুরের দারুণ জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার : 

যথেষ্টই চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য, জয়ের জন্য চাই ১৭০ রান। এই রান তাড়া করতে নেমে দারুণ সূচনা করেছিলেন খুলনা টাইটানসের দুই ওপেনার। উদ্বোধনীতে গড়েছিলেন ৯০ রান। তা দেখে মনে হয়েছিল জয়টা বুঝি সহজই হবে তাদের। কিন্তু প্রতিপক্ষ দলটির নাম রংপুর রাইডার্স, যার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। এমন দলের বিপক্ষে বিপক্ষে সহজেই পার পাওয়ার কথা নয়।

ঠিক তাই হয়েছে। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) দ্বিতীয় দিনে দ্বিতীয় ম্যাচে রংপুর শেষ পর্যন্ত জয় তুলে নিয়েছে। প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ এই ম্যাচে খুলনাকে তারা হারিয়েছে ৮ রানে।  দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে নেমে প্রথম জয়ের দেখা পেল গতবারের চ্যাম্পিয়নরা।

আজ রোববার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে রংপুরের করা ১৬৯ রানের জবাবে খুলনার ইনিংস থেমে যায় ১৬১ রানে। খুলনার পক্ষে পল স্টার্লিং সর্বোচ্চ ৬১ রান করেন। আর জুনায়েদ সিদ্দিকী ৩৩ ও মাহমুদউল্লাহ ২৪ রান করেও দলের হার এড়াতে পারেননি।

শফিউল ইসলাম দুটি এবং মাশরাফি ও ফরহাদ রেজা একটি করে উইকেট নিয়ে দলের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন।

এর আগে রংপুর ভালো সংগ্রহ গড়লেও শুরুটা ভালো হয়নি। দলীয় ১৮ রানে ওপেনার ওপেনার মেহেদী মারুফের (৫) উইকেট হারিয়ে বসে। সে ধারাবাহিকতায় এলেক্স হেলস (১৫) ও মোহাম্মদ মিঠুনের (১৯) উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপেও পড়ে যায় তারা।

তবে চতুর্থ উইকেটে রিলি রুশো ও রবি বোপারা দারুণ একটি পার্টনারশিপ গড়ে দলকে বড় সংগ্রহের পথ দেখান। রুশো ৫২ বলে ৭৬ রান  এবং   বোপারা ২৯ বলে ৪০ রানের চমৎকার দুটি ইনিংস খেলেন।

আলী খান ও জহির খান একটি করে উইকেট নিয়েও রংপুরের এই স্কোর গড়ার পথে খুব একটা বাধা হতে পারেননি।

এর আগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে রংপুর প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটসম্যানদের চরম দায়িত্বহীনতায় মাত্র ৯৮ রান গড়ে। পরে বোলারদের নৈপুণ্যে কিছুটা লড়াই করলেও শেষ পর্যন্ত  তিন উইকেটে হেরে যায় গতবারের চ্যাম্পিয়নরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here