মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী আদালতে

আন্তজার্তিক ডেস্ক  : 

দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেপ্তার মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের স্ত্রী রোজমাহ মানসুরকে (৬৬) আদালতে হাজির করা হয়েছে। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকালে কুয়ালালামপুরের একটি আদালতে তাঁকে হাজির করা হয়।

এর আগে গতকাল বুধবার মালয়েশিয়ার দুর্নীতি দমন অধিদপ্তর অর্থ পাচারের মামলায় সাবেক ফার্স্ট লেডিকে জিজ্ঞাসাবাদের পর আটক করে। রাতভর আটক রেখে সকালে তাঁকে আদালতে পাঠানো হয়। আদালতে নেওয়ার সময় তিনি অবশ্য হাসিমুখে নিজেকে নির্দোষ দাবি করে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, এসব অভিযোগের কোনোটিই সত্য নয়।

অর্থ পাচারসহ মোট ১৭টি মামলা দায়ের করা হয়েছে রোজমাহ মানসুরের বিরুদ্ধে। অর্থ পাচারের অন্য একটি মামলায় একই দিনে আদালতে হাজির হয়েছেন রোজমাহ মানসুরের স্বামী ও মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকও।

ইউনিভার্সিটি অব তাসমানিয়ার এশিয়া ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক জেমস চ্যান আলজাজিরাকে বলেন, ‘মালয়েশিয়ার ইতিহাসে এই প্রথম কোনো প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আনা হলো। বিষয়টি মালয়েশিয়ার বেশিরভাগ মানুষ ভালোভাবেই দেখছে। কারণ, মালয়েশিয়ার অধিকাংশ মানুষ তাঁকে পছন্দ করে না। তাঁর বিরুদ্ধে বিদেশে বিলাসবহুল কর্মকাণ্ডে অর্থ ব্যয়ের অভিযোগ করে বেশ কিছু প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।’

এ ছাড়া এসব অভিযোগকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে চ্যান আরো জানান, ‘স্বামী (নাজিব রাজাক) প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে নেপথ্যে থেকে প্রভাব বিস্তারেরও অভিযোগ রয়েছে তাঁর (রোজমাহ মানসুর) বিরুদ্ধে।’

রোজমাহ মানসুরের বিরুদ্ধে বিদেশি বিনিয়োগ ব্যবস্থাপনায় দেশটির অর্থ মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন ‘ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বারহাদ’ (ওয়ানএমডিবি)-এর তহবিল থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ পাচারের অভিযোগ এনে মামলা করেছে দেশটির দুর্নীতি দমন অধিদপ্তর।

যুক্তরাষ্ট্রের তদন্তকারীরা বলছে, নাজিবের সহযোগীরা ওয়ানএমডিবি তহবিল থেকে সাড়ে চার বিলিয়ন ডলার অর্থ সরিয়ে নিয়েছে। এর মধ্যে নাজিবের অ্যাকাউন্টে ঢুকেছে ৭০০ মিলিয়ন ডলার এবং নাজিবের স্ত্রীর অলংকার কিনতে খরচ করা হয়েছে ৩০ মিলিয়ন ডলার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here