ভৈরবে পৌর মেয়র নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন কে পাচ্ছেন! পৌর বাসীর মাঝে কৌতুহল!!

ইমন মাহমুদ লিটন
ভৈরব প্রতিনিধি:

নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা হওয়ার আগেই কিশোরগঞ্জের বন্দর নগরী ভৈরব পৌরসভা নির্বাচনের সম্ভাব্য রাজনৈতিক দলের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা এ নিয়ে শুরু করেছে দৌঁড়ঝাপ।

ইতোমধ্যে নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী হতে ইচ্ছুক আওয়ামীলীগ, বিএনপি সহ বিভিন্ন দলের প্রভাবশালী একাধিক নেতা ভোটের মাঠে নামছেন এমন সব আলোচনা চলছে পৌরসভার অলিগলিতে।

অনেকে ফেস্টুন, ব্যানার ও পোস্টার ছাপিয়ে এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের প্রার্থীতার বিষয়ে জানান দেয়ায় তাদের অতীত-বর্তমান এবং ভবিষ্যত নিয়েই দোকানে বসে চায়ের কাপে ঝড় উঠতে শুরু করেছে।

দলীয় প্রতীকে নির্বাচন নিয়ম চালু হওয়ায় দলীয় মনোনয়ন পেতে দৌঁড়ঝাপ শুরু করেছেন অনেক মনোনয়ন প্রত্যাশী। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের মেয়র পদে প্রার্থী হিসেবে একাধিক নেতার নাম লোকমুখে শোনা যাচ্ছে ।

তবে এখনো দলীয়ভাবে কোনো প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয়ার বিষয়টি প্রকাশ করা হয়নি। ইতোমধ্যে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে অন্তত ৯ জন ও বিএনপির একক ১ জন প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে।

তবে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের প্রতীক পেতে অনেকে জোর লবিং করছেন বলে বিশ্বস্ত এক সূত্রে জানা গেছে। পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সম্ভাব্য প্রার্থীরা অনেকে পোস্টার ছাপিয়ে এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গনসংযোগে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে।

দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীরা হলেন, ক্ষমতাসীন দলের বর্তমান মেয়র এড ফখরুল আলম আক্কাস, উপজেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্ঠা ও ভৈরব চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আলহাজ্ব হুমায়ুন কবির,ভৈরব পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ইফতেখার হোসেন বেনু, উপজেলা আওয়ামীলীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক শেফায়েত উল্লাহ,
ভৈরব চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল্লাহ আল মামুন, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতিক আহমেদ সৌরভ, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জুলফিকার আলী কাইয়ুম, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি খলিলুর রহমান লিমন, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আঃ লীগ নেতা মির্জা সুলায়মানের ছেলে মীর্জা সাজ্জাদ প্রমূখ।

ইতিমধ্যেই পৌর এলাকার হাটবাজার, চায়ের দোকানে প্রার্থীদের যোগ্যতা আচার ব্যবহার নিয়ে ভোটার জনতার মাঝে আলোচনা সমালেচনা চলছে। বিশেষ করে ক্ষমতাশীন দল আওয়ামী লীগের একাধিক প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাশী হওয়ায় চমক সৃষ্টি হয়েছে।

বর্তমান মেয়র, কিছু নতুন মুখ অন্যদিকে তরুন প্রার্থীও দেখা যাচ্ছে। কে পাবেন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন এ নিয়ে ভোটারদের মাঝে কৌতুহলের শেষ নেই। এ দিকে প্রার্থীরা মনোনয়ন পেতে যার যার অবস্থান থেকে জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন।

তন্মধ্যে লক্ষনীয় ও ভাবনার বিষয় হচ্ছে নতুন মুখ ও তরুনরা ইতিমধ্যে ভিন্ন ভিন্ন ভাবে প্রচারণা চালিয়ে গেলেও নৌকা প্রতিক না পেলে নির্বাচন থেকে সরে দাড়াবে বলেও গুঞ্জন শুরু হয়েছে। সব মিলিয়ে আওয়ামীলীগ থেকে কে মনোনয়ন পাবে তা নিয়ে পৌরবাসীর কৌতূহলের যেন শেষ নেই।

অপরদিকে প্রধান বিরোধীদল বিএনপির একক শক্তিশালী প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় আছেন সাবেক মেয়র ও ভৈরব পৌর বিএনপির সভাপতি হাজী মোঃশাহীন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here