টপ নিউজ 24

বরিশাল প্রতিনিধি

বরিশালের মুলাদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ঢুকে রোগীদের উপর হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছে একদল দুর্বৃত্তের বিরুদ্ধে। আজ বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে এই হামলায় সময় দর্শনার্থীদেরও মারধর করে তারা।

আহতরা হলেন- ওই উপজেলার সদর ইউনিয়নের খালাসীরচর গ্রামের সেকান্দার বেপারীর ছেলে এমদাদুল বেপারী, তার ভাই ইউনুছ বেপার ও তাদের স্বজন মোকলেছ বেপারীর স্ত্রী শিফা বেগম। আহতরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আহত সেকান্দার বেপারী জানান, একই এলাকার আলতাফ বেপারীর সঙ্গে জমি নিয়ে তাদের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে কয়েক দফা সালিশ বৈঠক হয়। সর্বশেষ বুধবার বৈঠক শেষে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা সীমানা নির্ধারণ শুরু করেন। সীমানা পিলার স্থাপনের সময় আলতাফ বেপারী ও তার ছেলে রাকিব বেপারীর নেতৃত্বে তাদের সহযোগীরা লাঠি সোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এতে তিনি ও তার ছেলে এমদাদুল এবং তার স্বজন ইউনুছ ও শিফা বেগম আহত হন।

স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে মুলাদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে পুনরায় রাকিব বেপারী ও তার লোকজন রামদা ও লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়। দ্বিতীয় দফা হামলায় সেকান্দারের ছেলে এমদাদুলের হাতের রগ কেটে যায়। এছাড়া সেকান্দার এবং শিফা বেগমও আহত হন।

মুলাদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাইয়েদুর রহমান জানান, জমি নিয়ে মারামারির ঘটনায় আহত কয়েকজন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হতে আসলে জরুরি বিভাগে থাকা অবস্থায় তাদের উপর হামলা চালায় প্রতিপক্ষের লোকজন। হামলার সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক ও সেবিকারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। খবর পেয়ে পুলিশ আসার আগেই হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here