top news 24

অনলাইন ডেস্ক

ফেনীতে নজরুল নামে এক ব্যবসায়ীর কোটি টাকার জমি, ফ্ল্যাট, ব্যাংকের চেক লিখে নেওয়াসহ তার ঘরের মূল্যবান মালামাল তুলে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও পুলিশের এক এসআই মিলে এ কাজ করেছেন বলে অভিযোগ।

এই ঘটনায় ছাগলনাইয়া থানার এসআই আলমগীরকে ক্লোজড করা হয়েছে। সোমবার রাতে পুলিশ সুপার কার্যালয়ের এক নোটিশ তাকে ক্লোজড করে পুলিশ লাইনে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে জানান ছাগলনাইয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মেজবাহ উদ্দিন। আলমগিরের বিরুদ্ধে গত ১৩ সেপ্টেম্বর ঢাকা পুলিশ হেডকোয়াটার ও ফেনীর পুলিশ সুপার বরাবর ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, আরিফিন আজাদ বাদল নামে এক ব্যবসায়ী বেশ কয়েকজন জনপ্রতিনিধি ও পুলিশের এসআই আলমগীর মিলে তার কাছে মোটা অংকের টাকা দাবি করতে থাকে। একপর্যায় ১৭ জুন ব্যবসায়ী নজরুলের বাড়িতে হানা দিয়ে প্রকাশ্য দিবালোকে ঘরে প্রবেশ করে পরিবারের সকলকে জিম্মি করে ঘরে থাকা ব্যবসায়ীক ডকুমেন্টস, জমি, ফ্ল্যাটর, গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র, স্বর্ণালংকার, টিভি, ফ্রিজসহ মূল্যবান জিনিসপত্র জোরপূর্বক গাড়িতে তুলে নিয়ে যায়।
পরে অস্ত্র ও মাদকের মামলার ভয় দেখিয়ে ছাগলনাইয়া থানার এসআই আলমগীরসহ কয়েকজন ১৮ জুন ভোরে নজরুলকে ফের বাড়ি থেকে প্রাইভেট কারে তুলে ঢাকার কেরানীগঞ্জ নিয়ে যায়। তারপর সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসে নিয়ে ঢাকায় তার সাড়ে ৬ কাঠার জমিটি লিখে নেয় এবং ব্যবসায়ীক লাইসেন্স হস্তান্তরের অঙ্গিকার নামাসহ ৮/১০ টি ব্ল্যাংক ষ্টাম্পে স্বাক্ষর নেয়। সেখানে আরো অজ্ঞাত ১৫-২০ জন উপস্থিত ছিলেন। পরে কৌশলে তিনি ঘটনাস্থল থেকে সটকে পড়েন।

পরে এসআই আলমগীর মুঠোফোনে জানায়, চুক্তি ছিলো লাইসেন্সসহ জমি লিখে নেয়া, কিন্তু ব্ল্যাংক ষ্ট্যাম্প নেয়ার যে ঘটনা ঘটেছে সেটি তিনি জানতেন না। নজরুলের এমন অভিযোগ নিয়ে জেলা পুলিশ তদন্তে নামে। বিষয়টি নিয়ে বিভাগীয় তদন্ত চলছে বলে জানায় তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here