top news 24

অনলাইন ডেস্ক

বৃহস্পতিবার এ পজিটিভ প্লাজমা দেওয়ার পর থেকে অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বর দুর্বলতা বেড়েছে। শুক্রবার শুরু হয়েছে কাশি। নানা রকম পরীক্ষার পর অভিনেতার শারীরিক যে সমস্যাগুলো ধরা পড়েছে, সেগুলোর চিকিৎসা চলছে। আরও দুদিন পার না হলে চিকিৎসকেরা তাঁর প্রকৃত অবস্থা নিশ্চিত করতে পারছেন না।তাঁর রক্ত পরীক্ষার রিপোর্ট ভালো ছিল না। দুদিন পর ওই পরীক্ষা আবারও করা হবে। তার আগে ভালো-মন্দ কিছুই বলা যাচ্ছে না। গতকাল অপূর্বের বুকে সিটি স্ক্যান করা হয়। সেই প্রতিবেদন দেখা গেছে, করোনায় তাঁর ফুসফুসের ৩৫ শতাংশ আক্রান্ত হয়েছে।কেবিনে আনার পর কথা বলছেন অপূর্ব। তবে চিকিৎসকেরা তাঁকে বেশি কথা বলতে নিরুৎসাহিত করছেন। অভিনেতার স্নেহভাজন কয়েকজন নির্মাতা এবং তাঁর পরিবারের সদস্যরা সার্বক্ষণিক হাসপাতালে আছেন। বেশ কয়েকজন নির্মাতা, যাঁরা নিয়মিত এই অভিনেতাকে নিয়ে কাজ করছেন, তাঁরা সময় ভাগ করে হাসপাতালে অবস্থান করছেন।

কাঁপুনিসহ জ্বর ও শারীরিক দুর্বলতা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন অভিনেতা অপূর্ব। এর আগে পরীক্ষায় তাঁর কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়। হাসপাতালে ভর্তির পর তাঁর খাবার খেতে অসুবিধা হচ্ছিল। কিছু খেলে বমি হতো।
গত জুলাই মাসে শুটিং স্পটে দুজন কুশলী করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় কোয়ারেন্টিনে ছিলেন অপূর্বসহ ওই ইউনিটের সবাই। পরে দুবার করোনা পরীক্ষার পর নেগেটিভ ফল নিয়ে শুটিংয়ে ফিরেছিলেন অপূর্ব। নানা রকম সতর্কতা সত্ত্বেও পরে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here