top news 24

অনলাইন ডেস্ক

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তৃতীয় টেস্টে হনুমা বিহারি ম্যাচ বাঁচানো ইনিংস খেললেও তাকে ‘ক্রিকেটের খুনি’ বলেছিলেন সংগীতশিল্পী ও ভারতের কেন্দ্রীয় বিজেপি সরকারের মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। ঘটনার পরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ট্রোলের পাশাপাশি তার দিকে সমালোচনাও ধেয়ে আসে।

এবার বাবুল সুপ্রিয়ের টুইটে নামের বানান শুধরে দিয়ে তাকে ট্রোল করলেন বিহারি নিজেই। বাবুল সুপ্রিয় ক্রিকেটার বিহারির নাম লিখেছেন ইংরেজি ‘বি’ শব্দ দিয়ে। কিন্তু হনুমার নামে ইংরেজি ‘ভি’ শব্দ দিয়ে বিহারি লেখা হয়।

বাবুলের টুইটের পরেই নেটিজেনরা তাকে ব্যঙ্গ করে নামের বানান ঠিক করতে বলেন। বুধবার সেই দায়িত্ব নিলেন বিহারি নিজেই। বাবুলের টুইটের উত্তর দিয়ে তিনি নিজের নামের বানান সংশোধন করে দিয়েছেন।
বিহারির টুইটের পরেই ফের নেটিজেনরা সোচ্চার হয়েছেন বাবুলের টুইট নিয়ে। খোঁচা দিতেও ছাড়েননি অনেকে। কিন্তু বিহারির হাস্যরস দেখেও মজেছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা।

উল্লেখ্য, তৃতীয় টেস্টে নিশ্চিত হারের মুখ থেকে হ্যামস্ট্রিংয়ের যন্ত্রণা সহ্য করেও ম্যাচ বাঁচান বিহারি। যোগ্য সঙ্গ দিয়েছিলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন, যিনি নিজেও পিঠের ব্যথায় কাতর ছিলেন। দুই ক্রিকেটারের বন্দনায় গোটা দেশ মাতলেও খেলা শেষের আগেই টুইট করেন বাবুল।

টুইটে তিনি লেখেন, ‘৭ রান করতে ১০৯ বল! একে নির্মমতা বললেও কম বলা হয়। হনুমা বিহারি কেবল ভারতের ঐতিহাসিক এক জয়ের সুযোগই নষ্ট করছে না, সে ক্রিকেটকেও খুন করছে। জেতার পথে না হাঁটা, সেটা যতই সংকীর্ণ হোক না কেন, এক ধরনের অপরাধ।’

এরপর বাবুল সুপ্রিয়কে নিয়ে মজা লুটেছেন নেটিজেনরা। নানা শ্লেষাত্নক ও হাস্যরসাত্মক মন্তব্যের ঝড় উঠেছিল টুইটারে। তবে নিজের বক্তব্যের পক্ষে সাফাই গেয়ে আরও একটি টুইট করেন বাবুল।

এবার তিনি লেখেন, ‘হনুমা যদি বাজে বলগুলো বাউন্ডারিতে পাঠাত, তাহলে ভারত হয়তো ঐতিহাসিক এক জয় তুলে নিত। পন্ত যা করেছে সেটা কিন্তু অপ্রত্যাশিত ছিল। তাই আমি আবারও বলছি, হনুমাকে শুধু বাজে বলগুলো মারার কথাই বলেছি, কারণ সে তখন সেট ছিল।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here