বড় ভাইয়ের উপস্থিতিতে তার স্ত্রী’কে (২৪) ধ’র্ষণ করার অ’ভিযোগ উঠেছে আপন দেবরের বি’রুদ্ধে। মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) দিবাগত রাত ৯টার দিকে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজলার গোপীনাথপুর গ্রামে ওই ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় দেবর আব্দুল বারেক ও স্বামী আব্দুল মালেককে রাতেই গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ।

এ ঘটনায় ধ’র্ষণের শিকার ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে স্বামী মালেক ও দেবর বারেককে অ’ভিযু’ক্ত করে গুরুদাসপুর থা’নায় ধ’র্ষণ মা’মলা করেছেন। বুধবার (১৯ আগস্ট) সকালে গুরুদাসপুর উপজে’লা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে। দুপুরে অ’ভিযু’ক্ত ওই দুইজনকে আ’দালতের মাধ্যমে নাটোর জে’ল-হাজতে পাঠানো হয়। গৃহবধূ অ’ভিযোগ করেন, বেশ কিছুদিন ধরে দেবর বারেক তাকে কুপ্রস্তাব দিচ্ছিলেন। স্বামীকে বলার পরেও কোনো ব্যবস্থা না নিয়ে বরং তাকে দোষারোপ করছিলেন। সামাজিকতার ভ’য়ে বিষয়টি কাউকে জানাননি। গেল মঙ্গলবার রাতে বাড়ির বারান্দায় মাছ কাটছিলেন গৃহবধূ। সে সময় স্বামীও বাড়িতেই ছিলেন। তিনি জানান, হঠাৎ দেবর বারেক বারান্দায় আসেন। এ সময় স্বামী মালেক বৈদ্যুতিক বাতি নিভিয়ে তাকে শয়ন ঘরে ডাকেন। পরে সেখানে দেবর এসে ধ’র্ষণ করেন। দুজনেরই বিচার দাবি করেছেন। নাজিরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত রানা লাবু ঘটনার সতত্য নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার পর পরই পু’লিশকে খবর দেয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here