top news 24

ধামরাই প্রতিনিধি

ঢাকার ধামরাইয়ের রঘুনাথপুর এলাকায় শামীমুর রহমান ফারুক নামে এক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার অবৈধ সিসা ও কয়লার কারখানা গুড়িয়ে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় ৪০ হাজার টাকা জরিমানা ও অবৈধ কারখানা বন্ধের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। গতকাল বুধবার (২৫ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ধামরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সামিউল হক এ অভিযান পরিচালনা করেন।

স্থানীয় বাইশাকান্দা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিএম মাসুদ রানাসহ এলাকাবাসী জানান, ধামরাই উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি সাবেক ইউপি সদস্য শামীমুর রহমান ফারুক দীর্ঘ প্রায় ৫ বছর ধরে রঘুনাথপুর এলাকায় অবৈধভাবে ১০টি চুল্লি নির্মাণ করেন। সেখানে হাজার হাজার টন কাঠ পুড়িয়ে তৈরি করা হচ্ছিল কয়লা এবং পুরাতন ব্যাটারি পুড়িয়ে শত শত মণ সিসা। এসব সিসা ও কয়লার কারখানার বিষাক্ত ধোঁয়ায় এলাকাবাসী শ্বাসকষ্টসহ নানা রোগে আক্রান্ত হয়েছে এবং মারা গেছে অনেক গরু।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও এলাকাবাসী লিখিতভাবে উপজেলা প্রশাসনের কাছে অভিযোগ করার পর গতকাল বুধবার ধামরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সামিউল হক ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এসময় বাবু মিয়া নামে এক শ্রমিককে আটক করতে পারলেও ইউএনওর উপস্থিতি টের পেয়ে কারখানার অন্যরা পালিয়ে যায়।

ধামরাইয়ের ইউএনও সামিউল হক বলেন, তিনটি চুল্লি গুড়িয়ে দেওয়ার পর আটক বাবু মিয়াকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে অপর সাতটি চুল্লিও ভেঙ্গে অবৈধ কারখানা বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here