top news 24

অনলাইন ডেস্ক

নানা বিতর্কে জড়িয়ে ক্ষমতার বিদায় ঘণ্টায় এসেও ক্ষান্ত হননি ডোনাল্ড ট্রাম্প। এমন সময় তার সরকার আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও ভয়ানক অপকর্মের পাল্লা ভারি করছে। এর মধ্যে ইয়েমেনের জনপ্রিয় প্রতিরোধ আন্দোলন আনসারুল্লাহকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষণা দেয়া ও এর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের সিদ্ধান্ত হচ্ছে এমনই এক অপকর্ম। খবর পার্সটুডের।

আগ্রাসী সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটকে সহায়তা জোরদার করতে গিয়ে ট্রাম্প সরকার এমন নিষেধাজ্ঞার পদক্ষেপ নিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ইয়েমেন বিষয়ে জাতিসংঘের বিশেষ দূত মার্টিন গ্রিফিথস বলেছেন, মার্কিন এই পদক্ষেপের ফলে ইয়েমেনে অনাহার ছড়িয়ে পড়বে এবং সেখানে জাতিসংঘের ত্রাণ তৎপরতাও বাধাগ্রস্ত হবে।

ডেভিড বিসলে বলেছেন, ‘আনসারুল্লাহর বিরুদ্ধে মার্কিন এই সিদ্ধান্ত ইয়েমেনের হাজার হাজার নিরপরাধ জনগণকে মৃত্যুদণ্ড দেয়ারই নির্দেশ।’ মানবীয় বিপর্যয়ের হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও মার্কিন সরকার আনসারুল্লাহকে সন্ত্রাসীর অপবাদ দেয়ার পদক্ষেপ থেকে পিছু হটবে না বলে জানিয়েছে। ‘রাজনৈতিক প্রক্রিয়ার অগ্রগতির স্বার্থে’ ও ‘সঠিক বার্তা দেয়ার জন্যই’ মার্কিন সরকার এ পদক্ষেপ নিচ্ছে বলে সাফাই দিয়েছে।
ইয়েমেনের ওপর বিগত ছয় বছরের আগ্রাসনে সৌদি জোটের ব্যাপক ব্যর্থতার প্রেক্ষাপটে মার্কিন সরকার জনপ্রিয় আনসারুল্লাহ’র ওপর নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে দিয়ে আসলে ইয়েমেনের মজলুম জনগণের কাছে ত্রাণ-সাহায্য পাঠানোর পথে বাধা সৃষ্টি করতে চায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here