গোদাগাড়ী পৌরসভার উন্নয়নে কাজ করার সুযোগ চান কাউন্সিলর বিপ্লব

সারোয়ার হোসেন,রাজশাহী প্রতিনিধি : রাজশাহীর গোদাগাড়ী পৌরসভার উন্নয়নে মহাপরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নেমেছেন বিএনপির মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও তরুণ সমাজসেবক গোদাগাড়ী পৌরসভার চার বারের সফল কাউন্সিলর বিপ্লব হোসেন।

তিনি প্রথম কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে অবহেলিত নিপিড়ীত গোদাগাড়ী পৌরবাসীর জীবন মনোউন্নয়নে দিনরাত পৌর এলাকার জনসাধারণের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন।

এছাড়াও অবহেলিত গোদাগাড়ী পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের রাস্তা ঘাট সংস্কার, স্কুল মসজিদের আংশিক কাজ সম্পূর্ণ করাসহ অসহায় দরিদ্র মানুষের মাঝে করোনা দুঃসময়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন কাউন্সিলর বিপ্লব হোসেন।

যার ফলে দিন যতই যাচ্ছে ততই যেনো দলমত নীর্বিশেষে পৌরবাসীর কাছে ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে কাউন্সিলর বিপ্লব হোসেনের জনপ্রিয়তা সাগরে পরিনত হয়েছে। গোদাগাড়ী পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ড সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, যেসব পাড়া মহল্লার ভিতরে কাঁচা রাস্তা ছিলো সেইসব রাস্তায় ইট বালু দিয়ে সলিং করে জনসাধারণের চলাচলের উপযোগী করে দিয়েছেন কাউন্সিলর বিপ্লব হোসেন। এছাড়াও মসজিদ মন্দির জলাশয় নিষ্কাশনের জন্য ডেন নির্মাণসহ খেলার মাঠ সংস্করণ করে দিয়েছেন কাউন্সিলর বিপ্লব হোসেন।

গোদাগাড়ী পৌর এলাকার বেশকিছু বাসিন্দা বলেন, গোদাগাড়ী পৌরসভায় একের পর এক মেয়র আসলেও পৌরবাসীর উন্নয়নে কোন কাজ হয়নি কিন্তু মেয়র সাহেবদের ঠিকই গাড়ী বাড়ীর উন্নয়ন হয়েছে। তবে এবার গোদাগাড়ী পৌরবাসীর ঘুম ভেঙেছে। তারা উন্নয়নের প্রতিক চিনতে পেরেছে। তাই সবাই এবার কাউন্সিলর বিপ্লব হোসেনের পক্ষে সোচ্চার হয়ে উঠেছে বলে তারা জানান।

কাউন্সিলর বিপ্লব হোসেন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় রয়েছে, এমনকি পৌরসভার মেয়র পর্যন্ত আওয়ামী লীগের তার পরেও তারা নিজেদের দ্বন্দ্বের কারণে পৌরবাসীর কোন মানোন্নয়ন করতে পারেনি, এতে করে ব্যাপক উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত রয়েছে পৌরবাসী। আমি বিএনপি থেকে কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে যে পরিমাণ উন্নয়ন করেছি তা আওয়ামী লীগের কোন মেয়র কাউন্সিলর করতে পারেনি। এবার বিএনপি থেকে আমি মেয়র নির্বাচিত হলে পৌরবাসীর উন্নয়নে সর্বচ্চ দক্ষতা দিয়ে কাজ করে যাবো ইনশাল্লাহ। এছাড়াও তিনি আরো বলেন, যদি সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন হয় তাহলে আমার জয় নিশ্চিত হবে। এতে কোন বিকল্প নেই বলে জানান তিনি।

সারোয়ার হোসেন
০৩ অক্টোবর /২০২০ইং

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here