top news 24

অনলাইন ডেস্ক

মারাত্মক এই ঘটনাটি ঘটে গেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের বরেলি জেলায়। একটি শিশু খেলার সময় হঠাৎ করেই একটি সাপের বাচ্চা হাত দিয়ে ধরে ফেলে! শুধু এটুকুই নয়- সেটিকে মুখে নিয়ে চিবিয়ে খেয়ে ফেলে। এর ফলে সাপের বাচ্চাটি শিশুটির মুখের মধ্যেই মারা যায়। এরপরই শিশুটির শারীরিক অবস্থার মারাত্মক অবনতি হয়। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। এই ঘটনার জেরে আশপাশের এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। মানুষজন শিশুটি ও সাপটিকে দেখতে সেখানে ভিড় জমায়।

ঘটনাটি ফতেহগঞ্জের পশ্চিমক্ষেত্রের ভোলাপুরের। শিশুটির আত্মীয়রা যখন দেখে তার মুখে কিছু একটা আছে আর সে সেটা চিবোচ্ছে তখন তাদের সন্দেহ হয়। এরপর তারা শিশুটির কাছে গিয়ে তার মুখ খুলেই হতভম্ব হয়ে যায়৷ শিশুটির মুখে ৬ ইঞ্চি লম্বা সাপের বাচ্চা পাওয়া যায়। এরপর তাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে জরুরি বিভাগে শিশুটিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

শিশুটির বাবা, চিকিৎসকদের গোটা ঘটনা কীভাবে হয়েছে তার বিবরণ দেন। তিনি জানান, শিশুটা বাড়ির বাইরে অন্যান্য দিনের মতোই খেলছিল। এই সময়েই সাপটি সে মুখে পুরে দেয়। সাপটিকে চিবানোর পর প্রথমে প্রচণ্ড আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হলেও সেভাবে বড় ক্ষতি হয়নি শিশুটির। সবাই ভেবেই নিয়েছিলেন শিশুটির বড় ক্ষতি হয়ে যাবে। হাসপাতালে ২ ঘণ্টা ধরে চিকিৎসার পর শিশুটিকে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়।
সাপের বাচ্চাটিকে মুখ থেকে বের করার পর চিকিৎসকরাও অবাক হয়ে যান। শিশুটির চিকিৎসক হরিশ্চন্দ্র বলেন, ‘৭ ইঞ্চি লম্বা সাপ হওয়ার জন্য সেভাবে শিশুটির বড় ক্ষতি হয়নি। তবে সাপটি বের না করা গেলে হয়তো শিশুটির মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারত।

শিশুটির বাবা ধর্মপাল বলেন, শিশুটির মুখের ভেতর থেকে যে সাপের বাচ্চাটি বের করা হয় তা প্রায় ৬ থেকে ৭ ইঞ্চি লম্বা। সাপটির ফনাও তৈরি হচ্ছিল। শিশুটি ওটা মুখের ভিতর রেখে চিবোতে চেষ্টা করেছিল। শিশুটির মুখে দমবন্ধ হয়ে সাপটির মৃত্যু হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here