কুলাউড়ায় তালামীযে ইসলামিয়ার বিক্ষোভ-সমাবেশ
ফ্রান্স ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শন করে রাসুল অবমাননায় চরম ধৃষ্টতা দেখিয়েছে।

মাওঃ ফজলুল হক খান সাহেদ

ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় মদদে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে কুলাউড়ায় বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশে করেছে বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়া কুলাউড়া উপজেলা ও পৌর শাখা

আজ (২৭.১০.২০২০ইং) বাদ আছর মিছিলটি কুলাউড়া রেলওয়ে জামে মসজিদ প্রাঙ্গণ থেকে বের হয়ে কুলাউড়ায় চৌহমনিতে এক সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আনজুমানে আল ইসলাহ্ উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও কুলাউড়া উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মাওঃ ফজলুল হক খান সাহেদ, তিনি তার বক্তব্যে বলেন, আজ আমাদের অন্তর ক্ষতবিক্ষত, হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। কারণ, যে নবী (সা.) কে জীবনের চেয়ে, পরিবার-পরিজন, ধন-সম্পদ সবকিছুর চেয়েও ভালোবাসি, সে নবী (সা.) কে আজ কাফের কুফ্ফাররা ধারাবাহিকভাবে অবমাননা করে যাচেছ। সম্প্রতি ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় মদদে মহানবী (সা.) কে অবমাননায় বিশ্ব মুসলিম চরমভাবে ব্যথিত ও ক্ষুব্ধ। ফ্রান্সের ইসলাম বিদ্বেষী এমন ঘৃন্য মনোভাব বিশ্ববাসীকে ভাবিয়ে তুলেছে। ফ্রান্স তাদের রম্য পত্রিকা শার্লি এবদোকে দিয়ে আবারো রাসুল (সা.)-এর ব্যাঙ্গচিত্র বানিয়ে তা তাদের সরকারি অফিসগুলোর সামনে প্রদর্শন করে রাসুল অবমাননায় চরম ধৃষ্টতা দেখিয়েছে। তাদের এমন কাজে আজ বিশ্ব মুসলিম ক্ষুব্ধ এবং মর্মাহত। তিনি ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী ম্যাক্রোর উদ্যেশ্যে বলেন, আপনি ফ্রিডম অব স্পিচ এর কথা বলছেন অথচ আপনিই কিছুদিন আগে হিজাব নিষিদ্ধ করে ফ্রিডম অব স্পিচ লঙ্ঘন করেছেন। সুতরাং আপনার এ কথা উদ্যেশ্য প্রণোদিত ও ইসলাম বিদ্বেষী। তিনি বাংলাদেশ সরকারে প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, আমরা ইসলাম বিদ্বেষী ফ্রান্সের পণ্য বাংলাদেশের বাজারে আর দেখতে চাইনা। সরকারিভাবে ফ্রান্সকে বয়কট ঘোষণা করা হোক, ফ্রান্সকে নিন্দা প্রস্তাব পাঠানো হোক। তিনি বাংলাদেশের নব্য নাস্তিকদের উদ্দেশ্যে হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, মুসলমানদের এ দেশে আর কোনো নাস্তিকতা প্রদর্শন করলে এর পরিনাম ভালো হবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here