Top news 24

অনলাইন ডেস্ক

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ থানার মূল ফটকের সামনে বসুরহাট পৌরসভার মেয়রপুত্র তাশিক মির্জাকে রক্তাক্তকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে ব্যবস্থা গ্রহণে ফের ২৪ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়েছেন বসুরহাট পৌরসভার আলোচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

বুধবার রাত ১২ টা ২৫ মিনিটে তার ভেরিফায়েড ফেসবুক আইডি থেকে স্টাটাসের মাধ্যমে এ আল্টিমেটাম দেন তিনি।

কাদের মির্জা লিখেন, আমার ছেলে তাশিক মির্জাকে তৎকালীন ওসি (তদন্ত) রবিউলের উপস্থিতে থানার সামনে সন্ত্রাসীরা পাইপগান দিয়ে পিটিয়ে মাথা ফাটিয়ে চৌচির করে রক্তে রঞ্জিত করেছে। ওই সব সন্ত্রাসী হলো কিলার বাদল, কিলার রাহাত, কিলার আকরাম উদ্দিন সবুজ, কিলার রুমেল, কিলার রিমন, কিলার কচি ও কিলার মঞ্জু। এ সময় তাদের নেতৃত্বে শতাধিক সন্ত্রাসী উপস্থিত ছিল।
ওই দিনের একটি ভিডিওতে দেখা যায়, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তারকে সন্ত্রাসীরা হুমকি দিয়ে বলছে, মির্জার ছেলেসহ তার কোনো লোককে চিকিৎসা দিবেন না। সন্ত্রাসীরা ডাক্তারদের অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে আমরা অন্য স্থান থেকে ডাক্তার এনে চিকিৎসার ব্যবস্থা করি। অন্যদিকে সে সময় ওসি রনি আমার অফিসে এসে আমার নেতাকর্মীদের অবরুদ্ধ করে রাখে, যেন কেউ বাহিরে না যেতে পারে।

আমার ছেলেকে আহত করার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন আসামি গ্রেফতার হয়নি। আমার ছেলেকে যারা রক্তাক্ত করেছে ওই সব সন্ত্রাসী আজ রাত ১০ টার সময় থানার সামনে এবং পুরো বাজারে অস্ত্র নিয়ে সু সজ্জিত হয়ে মহড়া দিয়েছে। সন্ত্রাসীরা আমার নেতা কর্মীদের মারার জন্য বাজারে অবস্থান নেয়। অথচ পুলিশ তাদের গ্রেফতার করছে না। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যারা আমার ছেলেকে রক্তাক্ত করছে তাদের গ্রেফতার করা না হয়, তাহলে যে কোন পরিস্থিতির জন্য আমি দায়ী থাকবো না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here