Top news 24

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ থানা ঘেরাও করে অবস্থান ধর্মঘট করছেন বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা। নোয়াখালীর ডিসি, পুলিশ সুপার (এসপি), কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি ও ওসি তদন্তের প্রত্যাহার এবং কোম্পানীগঞ্জ চরকাঁকড়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতা ফখরুল ইসলাম সবুজকে গ্রেফতারের দাবিতে এ অবস্থান ধর্মঘট করছেন তিনি।

মঙ্গলবার রাত ৯টা থেকে বসুরহাট-চাপরাশীর সড়কের কোম্পানীগঞ্জ থানার সামনে কাদের মির্জার নেতৃত্বে অবস্থান নেয় নেতাকর্মীরা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এই অবস্থান কর্মসূচি চলবে বলে জানা গেছে।

জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কোম্পানীগঞ্জ চরকাঁকড়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী ফখরুল ইসলাম সবুজ টেকের বাজারে কাদের মির্জার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেন। প্রতিবাদ সমাবেশে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সবুজ কাদের মির্জার কঠোর সমালোচনা করেন। তাৎক্ষণিক স্থানীয় নেতাকর্মীরা সবুজকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।
পরে আটক সবুজকে পুলিশ ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগে সমর্থকদের নিয়ে কাদের মির্জা থানার সামনে অবস্থান ধর্মঘট চালিয়ে যাচ্ছেন।

আবদুল কাদের মির্জার দাবি, দায়িত্বে অবহেলার জন্য নোয়াখালীর ডিসি খুরশেদ আলম খান, এসপি মো. আলমগীর, কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি ও ওসি তদন্ত মো. রবিউল হকের প্রত্যাহার ও কোম্পানীগঞ্জ চরকাঁকড়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতা ফখরুল ইসলাম সবুজ ও তার আশ্রয়দাতা মিজানুর রহমান বাদল ও ফখরুল ইসলাম রাহাতকে গ্রেফতার না করা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অবরোধ চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here