top news 24

অনলাইন ডেস্ক

রাশিয়ার তৈরি করোনার ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক ভি’ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করতে সক্ষম দাবি করে সম্প্রতি মেডিকেল জার্নাল ল্যানসেট রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। আর এ ভ্যাকসিন যারা তৈরি করেছেন তাদের কয়েক জনের কম্পিউটারে সাইবার হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে রাশিয়ান গবেষণা প্রতিষ্ঠান গামেলিয়া রিসার্চ সেন্টারের পরিচালক বলেছেন, এ হামলার ঘটনা ঘটেছে কয়েক মাস আগে। বিষয়টি আমাদের কাছে গুরুত্বর। ভ্যাকসিনের তথ্য চুরি করতে হামলা হয়েছে কিনা সেটা এ মুহূর্তে বলতে পারছি না।

করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক ভি’ সম্পর্কে মেডিকেল জার্নাল ল্যানসেট বলেছে, এ ভ্যাকসিন প্রায় ৯০ শতাংশ মানুষের শরীরে ভাইরাস প্রতিরোধী অ্যান্টিবডি তৈরি করছে। এর কারণে টি-কোষও সক্রিয় হয়েছে। এক গবেষণাপত্রে জানানো হয়েছে, ৭৬ জনকে করোনা ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ দেওয়া হয়েছিল। ৪২ দিন ধরে এই ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ হয়েছে। প্রথম ডোজ দেওয়ার ২১ দিনের মধ্যেই অ্যান্টিবডি তৈরির প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। গবেষকদের দাবি, দ্বিতীয় রিপোর্ট পাওয়া যায় ট্রায়ালের ২৮ দিন পর। দেখা গেছে, ভ্যাকসিন দেওয়ার পর রক্তে টি-কোষ কোষ সক্রিয় হতে শুরু করেছে। এই টি-কোষ হলো শরীরের মূল সুরক্ষা কোষ। এই কোষ সক্রিয় হলেই ভাইরাস বা প্যাথোজেনের বিরুদ্ধে ‘অ্যাডাপটিভ ইমিউন রেসপন্স’ তৈরি হয় শরীরে। স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিনের প্রভাবে রোগ প্রতিরোধ শক্তি তৈরি হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here