Top news 24

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীর দক্ষিণখানে মসজিদের সেপটিক ট্যাঙ্ক থেকে নিখোঁজ যুবকের ছয় টুকরা মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় করা মামলায় আজহারের স্ত্রী আসমা আক্তার ও মসজিদের ইমাম মাওলানা আব্দুর রহমানের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

এদিকে, র‌্যাবের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ইমাম মাওলানা আব্দুর রহমান জানিয়েছেন, আজহারকে হত্যার পর ইমামের সঙ্গে চতুর্থ সংসার করতে চেয়েছিলেন আসমা। তাই তার পরিকল্পনায় এই হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়। আসমা ইমাম আব্দুর রহমানকে প্রায়ই বলতেন, আজহারকে হত্যা করতে না পারলে তিনি নিজেই আত্মহত্যা করবেন অথবা ইমামকে হত্যা করবেন।

বুধবার এই দুই আসামির পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে এই হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে আরও বিস্তারিত তথ্য জানা যাবে বলে মনে করছেন তদন্ত সংশ্লিষ্টরা।
বুধবার দুপুরে রাজধানীর কুর্মিটোলা র‌্যাব সদর দফতরে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, রমজান মাসের ৭ দিন আগে আজাহারকে হত্যার পরিকল্পনা করেন মসজিদের ইমাম ও তার স্ত্রী আসমা আক্তার।

এ পরিকল্পনা আলোচনা করতে মসজিদের ইমাম তার এক ছাত্রের নামে একটি মোবাইল ফোন ও সিম কিনে আসমা আক্তারকে দেয়। ওই ফোনে হত্যার সম্পর্কে তারা শলা পরামর্শ করতো বলে জানিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

এর আগে মঙ্গলবার দক্ষিণখানের সরদার বাড়ি জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আব্দুর রহমানকে এবং সন্ধ্যায় রাজধানীর আব্দুল্লাহপুর এলাকা থেকে হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনাকারী ভুক্তভোগী আজহারের স্ত্রী আসমা আক্তারকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here