নিজস্ব প্রতিনিধি : 

রাজধানীর টিকাটুলি অভয় দাস লেনের একটি বাসায় লতিফুল হাবীব শুভ (১৮) নামের এক কলেজছাত্র গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ ছাড়া তেজগাঁও নাখালপাড়ায় নির্মাণাধীন ভবন থেকে পরে জাহাঙ্গীর হোসেন (৩৮) নামের এক শ্রমিক মারা গেছেন।

টিকাটুলির বাসা থেকে শুভকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক বিকেল পৌনে ৫টার দিকে এবং তেজগাঁও থেকে আহত অবস্থায় জাহাঙ্গীরকে হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক ৪টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।

শুভর খালাতো ভাই রিদওয়ান জাহান বাবু জানান, শুভ মতিঝিলের নটরডেম কলেজের দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়াশুনা করতেন। টিকাটুলি অভয় দাস লেনের একটি বাসায় বোন আশাকে নিয়ে ভাড়া থাকতেন। দুপুরে ভাইবোন বাসায় ছিলেন। হঠাৎ শুভ নিজের কক্ষের দরজা বন্ধ করে দেন। কিছুক্ষণ পর বোন আশা তাঁকে ডাকাডাকি করলে কোনো সাড়া শব্দ পাননি। পরে বাবুসহ কয়েকজন দরজা ভেঙে দেখতে পান, ফ্যানের সঙ্গে উড়না পেঁচিয়ে শুভ ঝুলছে। পরে তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

শুভর গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলায়।

এদিকে মৃত জাহাঙ্গীরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসা বাড়ির মালিক খলিলুর রহমান জানান, পূর্ব নাখালপাড়া বাগানবাড়ি এলাকায় তাঁর চারতলা ভবনে কাজ চলছে। এই ভবনেই রডমিস্ত্রির কাজ করতেন জাহাঙ্গীর। দুপুড়ে তিনতলা ভবনে কাজ করার সময় অসাবধানতাবসত নিচে পড়ে গুরুতর আহত হন তিনি। আহত অবস্থায় জাহাঙ্গীরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত জাহাঙ্গীরের গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার বিশখা গ্রামে। বাবার নাম মৃত নইম উদ্দিন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের দায়িত্বরত পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মৃতদেহ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here